চুল পড়ার কারণ সম্পর্কে অবাক করা ৮ টি তথ্য

Share With Your Friends

চুল পড়ার কারণ

 

এখনকার দিনে খুব সাধারন একটি সমস্যা আমাদের চুল পড়ে যাওয়ার। আমরা জানি আমাদের সৌন্দর্যের উপর চুলের কতটা প্রভাব আছে। শুধু তাই নয় আমাদের সৌন্দর্য সাহায্য করে আমাদের মনোবলকে উন্নত করতে। কিন্তু যখন আমাদের চুল পড়তে থাকে তখন চুল পড়ার কারণ সম্পর্কে আমাদের সঠিক ধারণা থাকা খুবই প্রয়োজন। তাই আজ আমাদের আলোচ্য বিষয় চুল পড়ার কারণ সম্পর্কে। 

 

চুল পড়ার কারণ কি কি হতে পারে?

বংশগত সমস্যা : 

আমাদের চুল পড়ার মুখ্য কারণ বংশগত বা জেনেটিক‍্যাল হতে পারে। আমরা দেখেছি কিছু মানুষের নির্দিষ্ট সময়ের পর থেকে চুল পড়া শুরু হয়ে যায় এবং কিছু সময়ের পর তাদের মাথায় চুলের পরিমাণ খুবই কম হয়। বংশগত বা জেনেটিক্যাল তাদের পূর্বপুরুষদেরও ঠিক একইভাবে নির্দিষ্ট সময়ের পর চুল পড়ে গিয়ে থাকবে এবং বংশানুক্রমে তাদেরও নির্দিষ্ট সময়ের পর চুল ওঠা বা চুল পড়া শুরু হয়ে যায়।

 

শারীরিক অসুস্থতা: 

কিছু মানুষের শারীরিক অসুস্থতা চুল পড়ার অন্যতম কারণ হতে পারে। আমরা যদি নিয়মিত কোন রোগ বা সমস্যার জন্য ঔষধ বা মেডিসিন গ্রহণ করি তাহলে তার পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া বা সাইডএফেক্ট এর ফলে চুল পড়ে যাওয়া বা চুল উঠে যাওয়া শুরু হতে পারে। যেরকম ক্যান্সার, থাইরয়েড, হাই ব্লাড প্রেসার, ব্লাড সুগার ইত্যাদি রোগ গুলির কারণে আমাদের চুল উঠে যায়।

 

শরীরে পুষ্টির অভাব : 

আমাদের চুল পড়ার আরেকটি কারণ হতে পারে পুষ্টির অভাব বা নিউট্রিশন ডেফিসিয়েন্সি। আমরা যদি পর্যাপ্ত পরিমাণ খাওয়ার গ্রহন না করি তাহলে আমাদের শরীরে প্রয়োজনমতো ভিটামিন এবং মিনারেলস এর অভাব দেখা দেয়। ফলে আমাদের চুল পড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। দৈনিক আমাদের খাদ্যের তালিকায় বিভিন্ন ভিটামিন এবং মিনারেল যুক্ত খাবার গ্রহণ করলে আমাদের এই সমস্যার সমাধান হয়।

 

চুলের সঠিক পরিচর্যা : 

আমরা যদি নিয়মিত আমাদের চুলের পরিচর্যা না করি তাহলে আমাদের চুল পড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। শুধু তাই নয় আমরা যদি প্রতিদিন কেমিক্যাল যুক্ত শ্যাম্পু বা দ্রব্যাদি আমাদের চুলে ব্যবহার করি তাহলেও পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া রূপে আমাদের চুল পড়ে যাওয়ার প্রবণতা বেড়ে যায়।

 

অত্যাধিক মানসিক চিন্তা : 

অত্যাধিক মানসিক চিন্তায় এবং মানসিক চাপের জন্য আমাদের চুল পড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। প্রতিটি মানুষের এমন কিছু মুহূর্ত আছে যার জন্য তাদের চুল পড়ে যাওয়ার প্রবণতা বেড়ে যায়, যেরকম গর্ভবতী মায়েদের এবং ছয় মাসের ছোট বাচ্চাদের।

 

অত্যাধিক ওজন বেড়ে যাওয়া : 

অনেক সময় আমাদের শরীরের ওজন বেড়ে যাওয়ার কারণে আমরা খুব বেশি নিয়ন্ত্রণে খাদ্য গ্রহণ করি বা ডায়েট করি যার ফলে দিন প্রতিদিন আমাদের ওজন কমতে থাকে এবং সাথে আমাদের চুলও পড়তে থাকে তার অন্যতম কারণ পর্যাপ্ত পরিমাণ ভিটামিন এবং মিনারেলসের অভাব হয় আমাদের শরীরে। শুধু তাই নয় খুব দ্রুত ওজন কমানোর জন্য আমরা বিভিন্ন রকম ঔষধ বা মেডিসিন ব্যবহার করে থাকি যার জন্য আমাদের হরমোনের পরিবর্তন হয় বা হরমোনাল ইমব্যালেন্স হয় এবং তার ফলস্বরূপ আমাদের চুল পড়ার বা চুল উঠে যাওয়ার প্রবণতা বেড়ে যায়।

 

মাথার ত্বকে সংক্রমণ : 

অনেক সময় আমাদের মাথার ত্বকে বা স্কাল্প এর মধ্যে কোনরকম ইনফেকশন বা সংক্রমণ দেখা দেয়। অথবা প্রচুর পরিমাণ খুশকি আমাদের চুল পড়ার অন্যতম কারণ। এছাড়াও আমাদের চুলে অনেক সময় পরজীবী বাস করে, যেরকম উকুন তার ফলেও আমাদের চুল পড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

 

দূষিত পরিবেশ : 

অস্বাস্থ্যকর এবং ভীষণভাবে দূষিত পরিবেশের মধ্যে আমরা যদি বেশিক্ষণ সময় থাকি বিশেষ করে আমাদের কর্মসূত্রের জন্য অথবা অন্যান্য কারণে তাহলে সেইসব পরিবেশে অনেক বেশি দূষণের কারণে আমাদের মাথার ত্বক বা স্কাল্পে বিভিন্ন প্রকার সংক্রমণ বা ইনফেকশন হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেড়ে যায় যা আমাদের চুল পড়ার কারণ। 

 

এছাড়াও বিভিন্ন কারণ হতে পারে, যার জন্য আমাদের চুল পড়ে যায় তবে আমরা চেষ্টা করেছি শুধুমাত্র গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো নিয়ে আলোকপাত করতে। চুল পড়ার কারণগুলি কি কি এই বিষয়ে আমরা কম বেশি আলোচনা করেছি তবে চুল পড়া বন্ধ করার উপায় সম্পর্কে আমাদের জেনে রাখা খুবই প্রয়োজন। 

 

বিশেষ দ্রষ্টব্য : যদি আপনি অনুভব করেন যে আপনার চুল খুব দ্রুত পড়ে যাচ্ছে এবং চুল পড়ে যাওয়া কোনমতেই থামছে না তাহলে অবশ্যই একবার আপনার ডক্টরের সাথে পরামর্শ করে নেওয়া উচিত। 

 

 


Share With Your Friends

2 thoughts on “চুল পড়ার কারণ সম্পর্কে অবাক করা ৮ টি তথ্য”

  1. Over the past week, I’ve been an avid visitor to this awesome website with top notch user content. The site owner excels at engaging visitors. I’m so happy and hope they keep up their magnificent work.

    Reply

Leave a Comment